wazislamic-baner
রমজান মাস। Bangla Hadis

রমজান মাস। Bangla Hadis

রমযান মাসের ক্বিয়াম আবু হুরায়রাহ (রাঃ) থেকে বর্ণিতঃ তিনি বলেন, রসূলুল্লাহ (সাল্লাল্লাহু ‘আলাইহি ওয়া সাল্লাম) রমযান মাসের ক্বিয়ামে খুবই উৎসাহী ছিলেন। তবে তিনি এ ব্যাপারে লোকদের প্রতি কঠোর নির্দেশ দিতেন না। তিনি বলতেনঃ যে ব্যক্তি ঈমানের সাথে সওয়াবের আশায় রমযানের রাতে...
রমযানের সওম ওয়াজিব Bangla Hadis

রমযানের সওম ওয়াজিব Bangla Hadis

রমযানের সওম ওয়াজিব হওয়া সম্পর্কে মহান আল্লাহ্‌র বাণীঃ “হে মু’মিনগন! তোমাদের জন্য সিয়াম ফরয করা হল, যেমন ফরয করা হয়েছিল তোমাদের পূর্ববর্তীদের উপর, যেন তোমরা মুত্তাকী হতে পার।” (আল-বাকারাহঃ ১৮৩) তালহা ইব্‌নু ‘উবায়দুল্লাহ (রাঃ) থেকে বর্ণিতঃ এলোমেলো চুলসহ একজন গ্রাম্য...
লাইলাতুল কদর অনুসন্ধান কর || লাইলাতুল ক্বদরের সওয়াব পেতে চাইলে ৫টি বিজোড় রাত্রেই তালাশ করতে হবে

লাইলাতুল কদর অনুসন্ধান কর || লাইলাতুল ক্বদরের সওয়াব পেতে চাইলে ৫টি বিজোড় রাত্রেই তালাশ করতে হবে

তিনি বলেন, আল্লাহর রসূল (সাল্লাল্লাহু ‘আলাইহি ওয়া সাল্লাম) রমযানের শেষ দশকে ইতিকাফ করতেন এবং বলতেনঃ তোমরা রমযানের শেষ দশকে [৩] লাইলাতুল কদর অনুসন্ধান কর। [৩] আল্লাহ তায়ালা কুরআনুল কারীমের সূরা ক্বদরে ঘোষণা করেছেন- লাইলাতুল ক্বদর হাজার মাসের (ইবাদাতের) চেয়েও উত্তম।...
রমযানের মধ্যম দশকে ই’তিকাফ করি

রমযানের মধ্যম দশকে ই’তিকাফ করি

আবূ সা’ঈদ (রাঃ) থেকে বর্ণিতঃ তিনি বলেন, আমরা নবী (সাল্লাল্লাহু ‘আলাইহি ওয়া সাল্লাম) – এর সঙ্গে রমযানের মধ্যম দশকে ই’তিকাফ করি। তিনি বিশ তারিখের সকালে বের হয়ে আমাদেরকে সম্বোধন করে বললেনঃ আমাকে লাইলাতুল কদর (-এর সঠিক তারিখ) দেখানো হয়েছিল পরে আমাকে তা ভুলিয়ে দেয়া...
লাইলাতুল কদর তালাশ করা

লাইলাতুল কদর তালাশ করা

ইব্‌নু ‘উমর (রাঃ) থেকে বর্ণিতঃ নবী (সাল্লাল্লাহু ‘আলাইহি ওয়া সাল্লাম) – এর কতিপয় সাহাবীকে স্বপ্নের মাধ্যমে রমযানের শেষের সাত রাত্রে লাইলাতুল কদর দেখানো হয়। (এ শুনে) আল্লাহর রসূল (সাল্লাল্লাহু ‘আলাইহি ওয়া সাল্লাম) বললেনঃ আমাকেও তোমাদের স্বপ্নের অনুরূপ দেখানো...
লাইলাতুল ক্বাদ্‌র এর ফযিলত || আবূ হুরায়রা (রাঃ) থেকে বর্ণিত

লাইলাতুল ক্বাদ্‌র এর ফযিলত || আবূ হুরায়রা (রাঃ) থেকে বর্ণিত

আবূ হুরায়রা (রাঃ) থেকে বর্ণিতঃ নবী (সাল্লাল্লাহু ‘আলাইহি ওয়া সাল্লাম) বলেছেনঃ যে ব্যক্তি রমযানে ঈমানের সাথে ও সওয়াব লাভের আশায় সাওম পালন করে, তার পূর্ববর্তী গুনাহসমূহ মাফ করে দেয়া হয় এবং যে ব্যক্তি ঈমানের সাথে, সওয়াব লাভের আশায় লাইলাতুল ক্বদ্‌রে রাত জেগে দাঁড়িয়ে সালাত...
লাইলাতুল কদর এর ফযীলত

লাইলাতুল কদর এর ফযীলত

আর মহান আল্লাহর বাণীঃ “নিশ্চয়ই আমি নাযিল করেছি এ কুরআন মহিমান্বিত রাত্রিতে। আর আপনি কি জানেন মহিমান্বিত রাত্রি কী? মহিমান্বিত রাত্রি হাজার মাসের চেয়েও শ্রেষ্ঠ। সেই রাত্রে প্রত্যেক কাজের জন্য ফেরেশতাগণ এবং রূহ তাদের প্রতিপালকের আদেশক্রমে অবতীর্ণ হয়। সেই রাত্রি শান্তিই...
রমজানের রোযা

রমজানের রোযা

আবু হোরায়রা (রাঃ) বর্ণিত, রাসূল (সঃ) বলেছেনঃ “যে ব্যক্তি ঈমান ও বিশ্বাস সহকারে সওয়াবের আশায় শবে কদরে নামায পড়ে এবং রমজানের রোযা রাখবে, তার অতীতের সকল গুনাহ মাফ করে দেওয়া হবে”। [সহিহ বুখারীঃ...
সাওম পালনকারী

সাওম পালনকারী

খালিদ ইবনু মাখলাদ (রহঃ) … সাহল (রাঃ) থেকে বর্ণিত, নাবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেনঃ জান্নাতে রায়্যান নামক একটি দরজা আছে। এ দরজা দিয়ে কিয়ামতের দিন সাওম পালনকারীরাই প্রবেশ করবে। তাঁদের ছাড়া আর কেউ এ দরজা দিয়ে প্রবেশ করতে পারবে না। ঘোষণা দেওয়া হবে,...
রোজা ভঙ্গের কারণ ও রোজার মাকরুহ সমূহ

রোজা ভঙ্গের কারণ ও রোজার মাকরুহ সমূহ

রোজা ভঙ্গের কারণ সমুহ: ১. ইচ্ছাকৃত পানাহার করলে।২. স্ত্রী সহবাস করলে ।৩. কুলি করার সময় হলকের নিচে পানি চলে গেলে (অবশ্য রোজার কথা স্মরণ না থাকলে রোজা ভাঙ্গবে না)।৪. ইচ্ছকৃত মুখভরে বমি করলে।৫. নস্য গ্রহণ করা, নাকে বা কানে ওষধ বা তৈল প্রবেশ করালে।৬. জবরদস্তি করে কেহ...
সৃষ্টির শুরু থেকেই কি রমজান মাসে রোজা পালন করার হুকুম আছে? না থাকলে কবে থেকে হুকুম দেওয়া হয়েছে?

সৃষ্টির শুরু থেকেই কি রমজান মাসে রোজা পালন করার হুকুম আছে? না থাকলে কবে থেকে হুকুম দেওয়া হয়েছে?

জরত আদম (আ.) থেকে রোজা শুরু: পবিত্র কোরআন মজিদে এরশাদ হয়েছে, ‘ওহে যারা ঈমান এনেছে! তোমার ওপর ফরজ করা হলো রোজা, যেমন ফরজ করা হয়েছিল তোমাদের পূর্ববর্তীদের ওপর, যাতে তোমরা মুত্তাকি হতে পারো।’ (২:১৮৩)। এ আয়াতের ব্যাখ্যায় আল্লামা আলুসি (রহ.) তার তাফসির গ্রন্থ রুহুল...
রোজা রেখে স্বপ্নদোষ হলে কি রোজা হবে?

রোজা রেখে স্বপ্নদোষ হলে কি রোজা হবে?

বপ্নদোষের কারণে রোযা ভঙ্গ হবে না। কারণ স্বপ্নদোষ রোযাদারের অনিচ্ছায় ঘটে থাকে। ইমাম নববী ‘আল-মাজমু’ গ্রন্থে বলেন: আলেমগণের ইজমা হচ্ছে- কারো স্বপ্নদোষ হলে রোযা ভাঙ্গবে না। কারণ সে ব্যক্তি এক্ষেত্রে অপারগ। যেমন- কারো অনিচ্ছা সত্ত্বেও কোন একটি মাছি যদি উড়ে এসে কারো পেটে...